ঢাকা ০৭:০৯ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ৫ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পানি বেশিক্ষণ ফোটানো কি ক্ষতিকর?

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৩:৫০:১০ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৯ মে ২০২৪ ২৮ বার পড়া হয়েছে
আজকের জার্নাল অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

নিরাপদ পানি পেতে ফোটানো কতটা কার্যকর?

অনেকেই নিরাপদ পানি পাওয়ার জন্য পানি ফোটান। কিন্তু সঠিক তাপমাত্রায় এবং যথাযথ সময় ধরে পানি জ্বাল দিলে পানির জীবাণু ধ্বংস হয় কিনা তা জানা জরুরি। এই বিষয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজের মাইক্রোবায়োলজি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডা. কাকলী হালদার কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দিয়েছেন।

ডিগ্রি সেলসিয়াসের ওপরে পৌঁছালে পানিতে থাকা বেশির ভাগ জীবাণু যেমন ব্যাকটেরিয়া, ভাইরাস ও প্রটোজোয়া ধ্বংস হয়ে যায়।

ডিগ্রিতে পৌঁছাতে আরও প্রায় ১০ মিনিট জ্বাল দিতে হয়। ১০০ ডিগ্রিতে পানি ফুটতে শুরু করলে বা বলক উঠলে ৩ মিনিট (সর্বোচ্চ ৫ মিনিট) ফোটানোর পর চুলা বন্ধ করে দিতে হবে।

ঠান্ডা হয়ে ৭০ ডিগ্রিতে আসতে আরও ১০-১৫ মিনিট সময় লাগে। পুরোপুরি ঠান্ডা করে খাওয়ার উপযোগী হতে হতে স্পোর ছাড়া প্রায় সব জীবাণুই ধ্বংস হয়ে যায়।

পানি এর চেয়ে বেশিক্ষণ ফোটালে পানিতে থাকা খনিজ উপাদানগুলো নষ্ট হয়ে যায়।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

পানি বেশিক্ষণ ফোটানো কি ক্ষতিকর?

আপডেট সময় : ০৩:৫০:১০ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৯ মে ২০২৪

নিরাপদ পানি পেতে ফোটানো কতটা কার্যকর?

অনেকেই নিরাপদ পানি পাওয়ার জন্য পানি ফোটান। কিন্তু সঠিক তাপমাত্রায় এবং যথাযথ সময় ধরে পানি জ্বাল দিলে পানির জীবাণু ধ্বংস হয় কিনা তা জানা জরুরি। এই বিষয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজের মাইক্রোবায়োলজি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডা. কাকলী হালদার কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দিয়েছেন।

ডিগ্রি সেলসিয়াসের ওপরে পৌঁছালে পানিতে থাকা বেশির ভাগ জীবাণু যেমন ব্যাকটেরিয়া, ভাইরাস ও প্রটোজোয়া ধ্বংস হয়ে যায়।

ডিগ্রিতে পৌঁছাতে আরও প্রায় ১০ মিনিট জ্বাল দিতে হয়। ১০০ ডিগ্রিতে পানি ফুটতে শুরু করলে বা বলক উঠলে ৩ মিনিট (সর্বোচ্চ ৫ মিনিট) ফোটানোর পর চুলা বন্ধ করে দিতে হবে।

ঠান্ডা হয়ে ৭০ ডিগ্রিতে আসতে আরও ১০-১৫ মিনিট সময় লাগে। পুরোপুরি ঠান্ডা করে খাওয়ার উপযোগী হতে হতে স্পোর ছাড়া প্রায় সব জীবাণুই ধ্বংস হয়ে যায়।

পানি এর চেয়ে বেশিক্ষণ ফোটালে পানিতে থাকা খনিজ উপাদানগুলো নষ্ট হয়ে যায়।